শুক্রবার ১৯ এপ্রিল ২০২৪ ৬ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ইন্টারনেটের দাম কমাতে ‘কঠোর’ সরকার
প্রকাশ: মঙ্গলবার, ০৭ নভেম্বর ২০২৩, ১১:১২ পূর্বাহ্ণ

মোবাইল ইন্টারনেট প্যাকেজের দাম কমাতে কঠোর অবস্থান নিয়েছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। একই পরিমাণ ডাটা প্যাকেজে শুধু মেয়াদ কম-বেশির জন্য দামে হেরফের না করা হোক। অর্থাৎ ৩ দিন মেয়াদের ডাটার যে দাম ছিল, সেই পরিমাণ ডাটা একই দামে ৭ দিন মেয়াদ করার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। আগামী ১০ নভেম্বরের মধ্যে মন্ত্রীর এ নির্দেশনা বাস্তবায়নে কঠোর টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনও (বিটিআরসি)।

মন্ত্রীর নির্দেশের পর ‘বিপাকে’ পড়েছে দেশের মোবাইল অপারেটরগুলো। নির্দেশনা মেনে ৩ দিন মেয়াদের ডাটার দাম ৭ দিনের প্যাকেজের সমপরিমাণ করলে ব্যবসায় লোকসান হবে বলে দাবি করছেন তারা। কিছুটা ছাড় পেতে তারা বিটিআরসিতে ধরনা দিচ্ছেন।

বিটিআরসি সূত্রে জানা গেছে, মোবাইল অপারেটরগুলোর সংগঠন অ্যাসোসিয়েশন অব মোবাইল অপারেটরস অব বাংলাদেশ (অ্যামটব) এ নিয়ে দৌড়ঝাঁপ করছে। সোমবার (৬ নভেম্বর) অ্যামটব মহাসচিব অবসরপ্রাপ্ত লেফটেন্যন্ট কর্নেল মোহাম্মদ জুলফিকার বিটিআরসি চেয়ারম্যানের সঙ্গে বৈঠকের জন্য সময় চান। তবে বিটিআরসি চেয়ারম্যানের পক্ষ থেকে সাড়া মেলেনি।

অ্যামটব নেতারা চাইছেন ১০ নভেম্বরের আগে তারা সব অপারেটর কোম্পানির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তাদের নিয়ে একবারের জন্য হলেও বিটিআরসি চেয়ারম্যান শ্যাম সুন্দর সিকদারের সঙ্গে বসতে চান। ডাটা প্যাকেজের দাম কমাতে মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বারের যে নির্দেশনা, তা বাস্তবায়নে তাদের সমস্যার কথা জানাতে চান।

তবে অ্যামটবের বৈঠকে সাড়া না দেওয়া নিয়ে কথা বলতে রাজি হননি বিটিআরসি চেয়ারম্যান শ্যাম সুন্দর সিকদার। তিনি বলেন, ‘মন্ত্রী একটা নির্দেশনা দিয়েছেন। সেটা আগে তারা বাস্তবায়ন করুক। দেখা যাক, গ্রাহকদের সুবিধার পাশাপাশি অপারেটরদের কী ক্ষতি হয়। তারপর এটা নিয়ে আলোচনা হতে পারে। একটা নির্দেশনা দেওয়ার পর তা বাস্তবায়নের আগেই সেটা নিয়ে আলোচনার কোনো যুক্তি নেই।’

এদিকে, দেশে চালু থাকা বেসরকারি তিন মোবাইল অপারেটর গ্রামীণফোন, রবি ও বাংলালিংক ডাটা প্যাকেজের দাম কমাতে নতুন নির্দেশনা বাস্তবায়ন নিয়ে ‘গড়িমসি’ করলেও মন্ত্রীর নির্দেশ অনুযায়ী কাজ শুরু করেছে টেলিটক। তারা বুধবারের (৮ নভেম্বর) মধ্যে প্যাকেজগুলোর দাম কমাবে এবং মেয়াদ বাড়াবে।

নাম অপ্রকাশিত রাখার শর্তে বিটিআরসির সিস্টেম অ্যান্ড সার্ভিসেস বিভাগের একজন কর্মকর্তা বলেন, ‘ডাটা প্যাকেজ কমিয়ে আনার নির্দেশনার পর অপারেটরগুলো কৌশলে নতুন ফন্দি এঁটেছেন। তারা ৭ ও ৩০ দিনের প্যাকেজের দাম আকাশচুম্বী করেছেন। এটা মন্ত্রী মহোদয়ের মোটেও পছন্দ হয়নি। এ নিয়ে তিনি ক্ষুব্ধ।’

তিনি বলেন, ‘গত রোববার (৫ নভেম্বর) যে বৈঠক হয়েছিল, সেখানেও মন্ত্রী তীব্র অসন্তোষ প্রকাশ করেন। এরপর বিটিআরসি চেয়ারম্যান অ্যামটব নেতাদের সঙ্গে প্যাকেজের দাম কমানো নিয়ে আলাপে বসলে সেটা তো মন্ত্রীর নির্দেশনা অমান্য করা হবে।

ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার গণমাধ্যমকে বলেন, ‘অপারেটররা তিনদিনের প্যাকেজটা সাতদিন মেয়াদ দিয়ে দাম অনেক বাড়িয়েছেন। এটা তো তারা করতে পারেন না। তারা ডাটা বিক্রি করবেন, সময় নয়। সময় বাড়া-কমার সঙ্গে দাম বাড়বে তা হবে না। আমরা নির্দেশনা দিয়েছি, আশা করছি—অপারেটরগুলোর বোধোদয় হবে।’

তবে মন্ত্রীর নির্দেশনার পরও ডাটা প্যাকেজ সংশোধন নিয়ে বিটিআরসিতে যাওয়া প্রসঙ্গে অ্যামটব ও মোবাইল অপারেটরগুলোর কয়েকজনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলেও তারা কেউই গণমাধ্যমে মন্তব্য করতে রাজি হননি।’

 







সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ