শুক্রবার ০৮ ডিসেম্বর ২০২৩ ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ঈদ উদযাপন: গণপরিবহনে নতুন মাত্রা মেট্রোরেল
প্রকাশ: শনিবার, ২২ এপ্রিল ২০২৩, ০৫:৩৮ অপরাহ্ণ

এক মাস সিয়াম সাধনার পর শনিবার সারাদেশে ঈদুল ফিতর উদযাপিত যাচ্ছে। ঈদের আনন্দ উপভোগ করতে রাজধানীবাসী ভিড় করছেন বিনোদনকেন্দ্রগুলোতে। রাজধানীর গণপরিবহন ব্যবস্থায় নতুন মাত্রা যোগ করেছে মেট্রোরেল। যোগাযোগ ব্যবস্থায় উন্নয়নের পাশাপাশি ঈদকে ঘিরে মেট্রোরেল রূপ নিয়েছে বিনোদনকেন্দ্রে। পরিবার, প্রিয়জনদের নিয়ে হাতিরঝিল, চিড়িয়াখানার মতো মেট্রোরেল ভ্রমণেও উন্মাদনা দেখা গেছে রাজধানীবাসীর মধ্যে।

শনিবার (২২ এপ্রিল) ঈদের দিন আগারগাঁও, মিরপুর ১০, পল্লবী স্টেশনে দীর্ঘ সারিতে দাঁড়িয়ে অসংখ্য মানুষকে টিকিট নিয়ে মেট্রোরেলে ভ্রমণ করতে দেখা গেছে।

ঈদের দিন মেট্রোরেল চলাচলের সময়ে পরিবর্তন আনা হয়েছে। এদিন রাজধানীবাসী যেন মেট্রোরেলে আনন্দভ্রমণ করতে পারেন সেজন্য দুপুর ২টা থেকে ২০ মিনিট পরপর চলাচল করছে মেট্রোরেল। চলবে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত।

নানা ব্যস্ততায় আগে যারা মেট্রোরেলে ভ্রমণ করতে পারেননি তারাও পরিবার-পরিজন নিয়ে দ্রুতগামী এ যানবাহনে ভ্রমণ করতে স্টেশনে এসেছেন। ট্রেনে ভ্রমণকারীদের সেলফি, ছবি ও ভিডিও করা নিয়ে ব্যস্ত থাকতে দেখা গেছে। মেট্রোরেরে ভ্রমণ করা শিশুদের উচ্ছ্বাস ছিল চোখে পড়ার মতো।

স্ত্রী-সন্তানকে নিয়ে মেট্রোরেল ভ্রমণে এসেছেন ব্যবসায়ী সুমন মিয়া। কেটেছেন আগারগাঁওয়ের টিকিট।

সুমন মিয়া তিনি বলেন, ‘এলাকায় ব্যবসা করি, এর আগে মেট্রোরেলে ওঠা হয়নি। আজকে সময় পেয়ে স্ত্রী ও মেয়েকে নিয়ে বেড়াতে এলাম। আজকেও তো অনেক ভিড়।’ স্টেশন দেখে তিনি বলেন, ‘অনেক সুন্দর করেছে। স্ত্রী ও বাচ্চারা খুব মজা করছে।’

বেসরকারি এক চাকরিজীবী তার সপ্তম শ্রেণি পড়ুয়া মেয়েকে নিয়ে আগারগাঁও এসেছেন। যাবেন মিরপুর ১০ নম্বর। প্রথমবার যাওয়ায় মেট্রোর টিকিটও কেটেছেন অন্যজনের সাহায্য নিয়ে।

তিনি তিনি বলেন, ‘মেয়ে অনেকবার বলেছে মেট্রোরেলে চড়বে। কিন্তু এতদিন সময় হয়নি। আজকে ঈদের দিন মেয়েকে নিয়ে বেড়াতে আসলাম। মেট্রোরেল দেখা হলো, বেড়ানোও হলো।’

পল্লবী স্টেশনে সুমন নামের এক আনসার কর্মকর্তা মেট্রোরেলের যাত্রীদের টিকিট কাটতে সাহায্য করছেন। তিনি বলেন, ‘আজকে যাত্রীর চাপ একটু বেশি। অন্যদিন দুপুরের পর সাধারণত এত যাত্রী হয় না। ঈদ উপলক্ষে যাত্রী আজকে একটু বেশি।’

প্যারাডাইজ স্কুলের সপ্তম শ্রেণির তিন ছাত্র পল্লবী স্টেশন থেকে মিরপুর ১০ নম্বরের টিকিট কেটেছেন। তাদের মধ্যে মেহেতাজ নামের একজন বলেন, ‘আমি আগেও চড়েছি। আজকে বন্ধুদের নিয়ে বেড়াতে এলাম। দ্রুত সময়ে মেট্রোরেলে চড়ে গন্তব্যে যাওয়া যায়। তবে এটা এখন দুপুর পর্যন্ত চলে, সময় বাড়ানো গেলে খুবই ভালো হতো।’

 







সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ