শনিবার ১৮ মে ২০২৪ ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

এরদোয়ানের ভাগ্য নির্ধারণের দিন আজ
প্রকাশ: রবিবার, ১৪ মে ২০২৩, ০৫:২০ অপরাহ্ণ

তুরস্কের ইতিহাসের গুরুত্বপূর্ণ দিন আজ। ২০ বছর ক্ষমতায় থাকা রজব তাইয়্যেব এরদোয়ান প্রেসিডেন্ট থাকবেন কি না তা নির্ধারণে রায় দিচ্ছেন তুর্কিরা। ২০১৬ সালে ব্যর্থ অভ্যুত্থান থেকে বেঁচে যাওয়ার পর প্রেসিডেন্ট এরদোয়ানের অর্জিত অনেক ক্ষমতা বাতিল করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন তার প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী কামাল কিলিকদারোগলু।

স্থানীয় সময় রবিবার সকাল ৮টা থেকে প্রেসিডেন্ট ও পার্লামেন্ট নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শুরু হয় তুরস্কে। ইতোমধ্যে ১৭ লাখের বেশি ভোটার বিদেশ থেকে তাদের সিদ্ধান্ত জানিয়েছেন। এ ছাড়া প্রথমবারের মতো এবার ভোট দিচ্ছেন ৫০ লাখ ভোটার। নির্বাচনে একজন ভোটার দুটি করে ভোট দেবেন। একটি প্রেসিডেন্টের জন্য, অন্যটি পার্লামেন্টের জন্য।

তুরস্কের ৬ কোটি ৪০ লাখ ভোটার কঠিন এক সময়ে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন করতে যাচ্ছেন। ব্যাপক মুদ্রাস্ফীতির পাশাপাশি দেশের ১১টি প্রদেশ সম্প্রতি ভয়াবহ দুটি ভূমিকম্পের সাক্ষী হয়েছে। প্রাকৃতিক ওই দুর্যোগে ৫০ হাজারের বেশি মানুষ মারা গেছে।
আঙ্কারার এক দোকানদার বুরাক ওন্ডার বলেন, খুব কম মানুষই আছেন যারা চশমা কিনছেন। মানুষ ছাড়েও চশমা কিনতে চায় না। কারণ এই টাকা খরচ করার মতো অবস্থানে তারা নেই।
প্রেসিডেন্ট এরদোয়ান অর্থনীতিতে সংস্কার আনায় মুদ্রাস্ফীতি বেড়েছে। অন্য দেশগুলো যখন সুদের হার বাড়াচ্ছে, তখন তিনি তা কমিয়ে দিয়েছেন।

স্থানীয় দোকানদার রহিম বলেন, ‘লোকেরা আসে এবং দাম জিজ্ঞাসা করে চলে যায়। তারা কিছুই কিনতে পারে না।
রহিমের ১৯ বছর বয়সী মেয়ে সুদেনুর তার ভবিষ্যৎ নিয়ে উদ্বিগ্ন। হয়তো তার ক্রীড়া বিজ্ঞান অধ্যয়নের উচ্চাকাঙ্ক্ষা অধরাই রয়ে যাবে। প্রথমবারের মতো ভোটার হিসেবে সুদেনুরের তার মতো ৫০ লাখ ভোটার নির্বাচনের ফলাফলে বড় পরিবর্তন আনবেন বলে আশা করা হচ্ছে।

এবারের নির্বাচনে ২৪টি রাজনৈতিক দল এবং ১৫১ জন স্বতন্ত্র প্রার্থী ৬০০ সদস্যের তুরস্কের পার্লামেন্ট আসনের জন্য প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

ভোটাররা তিন জন প্রেসিডেন্ট প্রার্থীর মধ্যে একজনকে বেছে নেবেন। এবার এই পদে লড়ছেন বর্তমান প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোয়ান, প্রধান বিরোধী নেতা কামাল কিলিকদারোগলু ও মুহাররেম ইনসে।

সূত্র: বিবিসি, আল জাজিরা







সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ