শুক্রবার ১৯ জুলাই ২০২৪ ৪ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চট্টগ্রাম-৮ আসনে ভোট গণনা চলছে
প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ২৭ এপ্রিল ২০২৩, ০৮:৫৫ অপরাহ্ণ

চট্টগ্রাম-৮ (চান্দগাঁও-বোয়ালখালী) আসনের উপনির্বাচনের ১৯০টি ভোট কেন্দ্রের এক হাজার ৪১৪টি ভোটকক্ষে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) মাধ্যমে ভোটগ্রহণ শেষ হয়েছে। এই নির্বাচনে কোথাও কোনও অপ্রীতিকর ঘটনার অভিযোগ ওঠেনি।

এর আগে, বৃহস্পতিবার (২৭ এপ্রিল) সকাল ৮টা থেকে ভোটগ্রহণ শুরু হয়। চলে বিকাল ৪টা পর্যন্ত। সকালের দিকে ভোটারের উপস্থিতি কিছুটা কম থাকলেও বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে লম্বা হতে থাকে ভোট দিতে আসা মানুষের লাইন। তবে কয়েকটি কেন্দ্রে ইভিএম মেশিনে স্লো ভোটগ্রহণ হয়েছে বলে অভিযোগ তুলেছেন কয়েকজন ভোটার।

নগরের মহমদিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পুরাতন ভবন কেন্দ্রে ভোট দিতে আসা আলাউদ্দিন অভিযোগ করেন, ইভিএম কিছুটা সমস্যা করছে। এ কারণে ভোট গ্রহণে স্লো হচ্ছে।

এদিকে, বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের মোমবাতি প্রতীকের প্রার্থী সেহাব উদ্দিন মুহাম্মদ আব্দুস সামাদ সকালে বিভিন্ন কেন্দ্র পরিদর্শন করেন।
সাংবাদিকদের কাছে তিনি অভিযোগ করে বলেন, নির্বাচনে বিভিন্ন কেন্দ্র থেকে মোমবাতির এজেন্ট বের করে দেওয়ার অভিযোগ পেয়েছি। আওয়ামী লীগ প্রার্থীর অনুসারীরা এ কাজ করছে। বিশেষ করে ৯নং চরণদ্বীপ ওয়ার্ড ও পোপাদিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়সহ কিছু কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটেছে। অনিয়মের অভিযোগে তিন কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ বন্ধের জন্য রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ করেছি।

চট্টগ্রাম (1)
অপরদিকে, সকাল ৮টায় নগরের বহদ্দারহাট এখলাসুর রহমান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ভোট দেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী নোমান আল মাহমুদ। এ সময় তিনি সাংবাদিকদের বলেন, উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্যে দিয়ে প্রতিটি কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ চলছে। আমার সমর্থকরা কোনও কেন্দ্রে প্রভাব বিস্তারের চেষ্টা করেনি। আশা করছি, ভোটগ্রহণ সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হবে।

চট্টগ্রাম আঞ্চলিক নির্বাচন ও রিটার্নিং কর্মকর্তা মোহাম্মদ হাসানুজ্জামান বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হয়েছে। বড় ধরনের কোনও অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
এই উপনির্বাচনে একজন স্বতন্ত্রসহ পাঁচ প্রার্থী নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। প্রার্থীদের মধ্যে রয়েছেন- বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী নোমান আল মাহমুদ, বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের মোমবাতি প্রতীকের প্রার্থী সেহাব উদ্দিন মুহাম্মদ আব্দুস সামাদ, ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশের চেয়ার প্রতীকের প্রার্থী সৈয়দ মুহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন, ন্যাশনাল পিপলস পার্টির (এনপিপি) আম প্রতীকের প্রার্থী কামাল পাশা ও স্বতন্ত্র একতারা প্রতীকের রমজান আলী।

নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, এই আসনে মোট ভোটার সংখ্যা পাঁচ লাখ ১৭ হাজার ৬৫২ জন। এর মধ্যে পুরুষ দুই লাখ ৬৩ হাজার ৫৪৩ ও নারী দুই লাখ ৫৪ হাজার ১০৯ জন।

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের ৭ নভেম্বর ওই আসনের সংসদ সদস্য জাসদ নেতা মইন উদ্দিন খান বাদল ভারতের বেঙ্গালুরুর একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। তার মৃত্যুতে আসনটি শূন্য হলে ২০২০ সালের ১৩ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত উপনির্বাচনে দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোছলেম উদ্দিন আহমদ সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন। গত ৫ ফেব্রুয়ারি রাতে রাজধানীর একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন মোছলেম উদ্দিন আহমদ। এরপর আবারও আসনটি শূন্য ঘোষণা করে ইসি।







সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ