সোমবার ১৭ জুন ২০২৪ ৩ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পদ্মা সেতুতে ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড পরিমান টোল আদায়
প্রকাশ: বুধবার, ২৮ জুন ২০২৩, ০২:৫৪ অপরাহ্ণ

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মহাসড়ক (ঢাকা-মাওয়া এক্সপ্রেসওয়ে) হয়ে পদ্মা সেতু দিয়ে নির্বিঘ্নে প্রিয়জনের সঙ্গে ঈদ করতে যাচ্ছেন দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ২৩ জেলার মানুষ। এক্সপ্রেসওয়েতে দক্ষিণ-পশ্চিমবঙ্গ অভিমুখে দূরপাল্লার গণপরিবহন ও ব্যক্তিগত যানের অতিরিক্ত চাপ রয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় পদ্মা সেতু দিয়ে ৪৩ হাজার ১৩৭টি যানবাহন পারাপার হয়েছে। এতে টোল আদায় হয়েছে ৪ কোটি ৬০ লাখ ৫৩ হাজার ৩০০ টাকা। যা পদ্মা সেতুতে এ যাবতকালের সর্বোচ্চ রেকর্ড পরিমাণ টোল আদায় বলে জানিয়েছে সেতু কর্তৃপক্ষ।

বুধবার (২৮ জুন) সকালে সেতু কর্তৃপক্ষ এ তথ্য জানায়। এর আগে গত বছরের ৮ জুলাই পদ্মা সেতুতে সর্বোচ্চ ৪ কোটি ১৯ লাখ ৩৯ হাজার ৬৫০ টাকা টোল আদায় হয়েছিল।

বঙ্গবন্ধু সেতুতেও টোল আদায়ে নতুন রেকর্ড সৃষ্টি হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় বঙ্গবন্ধু সেতুতে ৩ কোটি ৫৮ লাখ ৪০ হাজার ২০০ টাকা টোল আদায় হয়েছে। এসময় সেতুর উপর দিয়ে পরিবহন পারাপার হয়েছে ৫৫ হাজার ৪৮৮টি। যা বঙ্গবন্ধু সেতু টোল আদায় বিগত রেকর্ডকে ভঙ্গ করে নতুন রেকর্ড গড়েছে।

সেতু কর্তৃপক্ষ জানায়, গত ২৪ ঘণ্টায় পদ্মা সেতু দিয়ে ৪৩ হাজার ১৩৭টি যানবাহন পারাপার হয়েছে। মাওয়া প্রান্ত থেকে ২৯ হাজার ৮৯৭ টি ও জাজিরা প্রান্ত থেকে ১৩ হাজার ২৪৯ টি যানবাহন পারাপার হয়েছে। দ্রুত সময়ে যানবাহনের টোল আদায়ের জন্য সেতুর দুই প্রান্তে ১৫টি টোলবুথ সচল রাখা হয়েছে। এ কারণে দ্রুত সময়ে দিয়ে পদ্মা সেতু পাড়ি দিচ্ছে যানবাহনগুলো। এছাড়া মোটরসাইকেল চলাচলের জন্য আলাদা লেন থাকায় সেতুতে অন্য যানবাহন চলাচলে কোনও ধরনের বিঘ্ন হচ্ছে না।

পদ্মা সেতু সাইড অফিসের অতিরিক্ত পরিচালক আমিরুল হায়দার চৌধুরী জানান, ঈদ যাত্রায় পদ্মা সেতুর মাওয়া প্রান্তে অতিরিক্ত যানবাহনের চাপ রয়েছে। তবে কোথাও কোন দুর্ভোগ বা বিড়ম্বনা নেই। নির্বিঘ্নে পদ্মা সেতু হয়ে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ২৩ জেলার মানুষ যাতায়াত করতে পারছে।

তিনি আরও জানান, প্রতি ৫ সেকেন্ডে পদ্মা সেতুতে উঠছে ১৫টি যানবাহন। সে হিসাবে প্রতি মিনিটে ১৮০টি যানবাহন টোল দিয়ে সেতুতে উঠছে।

এদিকে শেষের দিনে ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কের কোথাও যানজট নেই। মহাসড়কের বাউশিয়া পাখির মোড়, ভবেরচর বাস স্ট্যান্ড, আনারপুরা বাস স্ট্যান্ড ও জামালদী বাস স্ট্যান্ডসহ বিভিন্ন পয়েন্টে হাইওয়ে পুলিশ নজরদারি করছে।

এ বিষয়ে ভবেরচর হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এএসএম রাশেদুল ইসলাম জানান, ঈদে সড়কে বাড়তি যানবাহনের চাপ থাকলেও কোথাও যানজট নেই। আমাদের গজারিয়ায় ১৩ কিলোমিটার এলাকা জুড়ে রয়েছে মোবাইল টিম, মোটরসাইকেল টিম।

 







সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ