শনিবার ১৮ মে ২০২৪ ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

 পরীক্ষার্থী বহিষ্কার ও অনুপস্থিতিতে রেকর্ড
প্রকাশ: রবিবার, ০৭ মে ২০২৩, ০৭:৪৭ অপরাহ্ণ

সারাদেশে চলমান এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার চতুর্থ দিনে রেকর্ড সংখ্যক পরীক্ষার্থী বহিষ্কার হয়েছেন। এদিন শিক্ষার্থী অনুপস্থিতির সংখ্যাও ছিল চলতি বছরের সর্বোচ্চ। ৯টি সাধারণ শিক্ষাবোর্ড, কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষাবোর্ড মিলিয়ে একদিন মোট অনুপস্থিত পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ৩৫ হাজার ৮৬৫ জন। একই দিন এসব শিক্ষাবোর্ডে মোট বহিষ্কার হয়েছেন ১৩০ পরীক্ষার্থী।

রোববার (৭ মে) সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত ৯টি সাধারণ শিক্ষাবোর্ডের অধীনে ইংরেজি দ্বিতীয়পত্র পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। একই সময়ে অন্য দুই বোর্ডে (কারিগরি ও মাদরাসা) ভিন্ন বিষয়ে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। তবে চতুর্থ দিনের পরীক্ষায় কোনো পরীক্ষক বহিষ্কৃত হননি।

আন্তঃশিক্ষা বোর্ডের তথ্যানুয়ায়ী, এসএসসি পরীক্ষার চতুর্থ দিন ইংরেজি দ্বিতীয়পত্র পরীক্ষায় দেশের ৯টি সাধারণ শিক্ষাবোর্ডে অনুপস্থিত ছিলেন ১৮ হাজার ৬০৬ জন পরীক্ষার্থী। অনুপস্থিতির হার ১ দশমিক ২১ শতাংশ। পরীক্ষায় অসদুপায় অবলম্বনের দায়ে একদিনে রেকর্ড ৯৪ পরীক্ষার্থীকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

এদিন কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষাবোর্ডে ৩৬ জন পরীক্ষার্থী বহিষ্কার ও ১৭ হাজারের বেশি পরীক্ষার্থী অনুপস্থিত ছিলেন।

৯টি সাধারণ শিক্ষাবোর্ডের মধ্যে ঢাকা বোর্ডে চার হাজার ৮৫০ জন, রাজশাহী বোর্ডে এক হাজার ৮২৮ জন, কুমিল্লা বোর্ডে দুই হাজার ৩৪২ জন, যশোর বোর্ডে দুই হাজার ২৯ জন, চট্টগ্রাম বোর্ডে এক হাজার ৯৫৮ জন, সিলেট বোর্ডে এক হাজার ১৫০ জন, বরিশাল বোর্ডে এক হাজার ১৯৩ জন, দিনাজপুর বোর্ডে দুই হাজার ১৪৪ জন এবং ময়মনসিংহ বোর্ডে এক হাজার ১১২ জন পরীক্ষার্থী অনুপস্থিত ছিলেন।

একই দিন বহিষ্কৃত হয়েছেন ৯৪ জন শিক্ষার্থী। তাদের মধ্যে ঢাকা বোর্ডে ১৭ জন, চট্টগ্রামে ২ জন, রবিশালে ১৬ জন, সিলেটে একজন, দিনাজপুরে ১২ জন, কুমিল্লায় ১৪ জন ও ময়মনসিংহ বোর্ডে ৩২ পরীক্ষার্থী রয়েছেন।

এদিকে মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডে চতুর্থ দিনের পরীক্ষায় মোট অনুপস্থিত ছিলেন ১৩ হাজার ৮৭০ জন, বহিষ্কার হন ২৭ পরীক্ষার্থী। অনুপস্থিতির হার ৪ দশমিক ৮৪ শতাংশ।

কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষায় অনুপস্থিত ৩ হাজার ৩৮৯ জন এবং বহিষ্কার ৯ জন। অনুপস্থিতির হার ২ দশমিক ৮৫ শতাংশ।

গত ৩০ এপ্রিল শুরু হওয়া চলতি বছরের এসএসসি ও সমমান পরীক্ষায় দেশের ৯টি সাধারণ শিক্ষা বোর্ড ও কারিগরি-মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের অধীনে প্রথম দিনে অনুপস্থিত ছিলেন ৩১ হাজার ৪৪৭ পরীক্ষার্থী। অসাধুপন্থা অবলম্বন করায় বহিষ্কার হন ২০ শিক্ষার্থী। দ্বিতীয় দিনে অনুপস্থিত ৩২ হাজার ৩৫৬ জন এবং বহিষ্কার হন ৩৮ জন শিক্ষার্থী। তৃতীয় দিন চার পরীক্ষকসহ ৬৫ জন বহিষ্কার ও অনুপস্থিত ছিলেন ১৮ হাজার ১৮১ জন পরীক্ষার্থী।

এ বছর সব শিক্ষাবোর্ড মিলিয়ে ২০ লাখ ৭২ হাজার ১৬৩ জন পরীক্ষার্থী এসএসসি ও সমমান পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছেন। এরমধ্যে ছাত্র সংখ্যা ১০ লাখ ২১ হাজার ১৯৭ এবং ছাত্রী ১০ লাখ ৫০ হাজার ৯৬৬ জন। মোট শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ২৯ হাজার ৭৯৮টি। এরমধ্যে ৯টি সাধারণ শিক্ষা বোর্ডে কেন্দ্র ২ হাজার ২৪৪টি, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ১৭ হাজার ৭৮৬টি।

অন্যদিকে মাদরাসা শিক্ষাবোর্ডে মোট কেন্দ্র ৭১৬টি এবং শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ৯ হাজার ৮৫টি। কারিগরি শিক্ষাবোর্ডে মোট কেন্দ্র ৮৫০টি এবং মোট শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ২ হাজার ৯২৭টি। এবার মোট শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বেড়েছে ২০৭টি এবং কেন্দ্র বেড়েছে ২০টি।

এ বছর ৯টি সাধারণ শিক্ষা বোর্ডের অধীনের এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়েছেন ১৪ লাখ ৯০ হাজার ৭৮৫ জন, দাখিল পরীক্ষায় ২ লাখ ৪৭ হাজার ৭৩ জন এবং এসএসসি ও দাখিল ভোকেশনাল পরীক্ষায় অংশ নিয়েছেন ১ লাখ ২২ হাজার ৮০৪ জন।







সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ