শনিবার ১৮ মে ২০২৪ ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

 প্রশিক্ষিত শিক্ষক ছাড়া ষষ্ঠ-সপ্তম শ্রেণির ক্লাস নেওয়া যাবে না
প্রকাশ: মঙ্গলবার, ০২ মে ২০২৩, ০৮:১২ অপরাহ্ণ

বাস্তবায়ন শুরু হওয়া নতুন জাতীয় শিক্ষাক্রমের ষষ্ঠ ও সপ্তম শ্রেণির রুটিন সংশোধন নির্দেশনা জারি করেছে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতর। রবিবার (৩০ এপ্রিল) এ-সংক্রান্ত নির্দেশনা জারি করা হয়।

নির্দেশনায় বলা হয়, বিষয়ভিত্তিক প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত শিক্ষক ছাড়া অন্য কোনও শিক্ষক ষষ্ঠ ও সপ্তম শ্রেণির সেশন বা শ্রেণি কার্যক্রম চালাতে পারবেন না।

গত ২৬ এপ্রিলের জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের (এনসিটিবি) নির্দেশনা অনুযায়ী রুটিন সংশোধন সংক্রান্ত নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

এনসিটিবির নির্দেশনায় বলা হয়, জাতীয় শিক্ষাক্রম ২০২২ অনুযায়ী প্রণিত পরীক্ষামূলক শিখন শেখানো সামগ্রী ২০২৩ শিক্ষাবর্ষ থেকে সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ষষ্ঠ ও সপ্তম শ্রেণিতে বাস্তবায়ন শুরু হয়েছে। ইতোমধ্যে এনসিটিবি শিখন শেখানো সামগ্রীগুলো বিষয়ভিত্তিক বিশেষজ্ঞদের দিয়ে রিভিউ করিয়েছে এবং এনসিটিবির কর্মকর্তারা দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে উপস্থিত থেকে ফিডব্যাক (ফলাবর্তন) সংগ্রহ করেছেন।

এ অবস্থায় রিভিউ প্যানেলসহ সব অংশীজনের মতামত বিবেচনা করে ২০২৩ সালের ষষ্ঠ ও সপ্তম শ্রেণির ক্লাস রুটিন সংশোধন করা হয়েছে। সংশোধিত ক্লাস রুটিন বাস্তবায়নের জন্য প্রয়োজনীয় নির্দেশনা প্রদানের জন্য অনুরোধ করা হলো।

সেশন রুটিন ব্যবহারের প্রয়োজনীয় নির্দেশনাগুলো হলো:
১. রোল কলের কারণে প্রথম রিপিয়ড হবে ৬০ মিনিটের এবং বাকি পিরিয়ড ৫০ মিনিটের।

২. প্রতিটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান অবশ্যই প্রতিদিন সমাবেশে শিক্ষার্থীদের জাতীয় সংগীত গাওয়ার ব্যবস্থা করবে। এ ছাড়া শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান নিজেদের পরিকল্পনা অনুযায়ী শরীর চর্চা, পর্যায়ক্রমে বিভিন্ন শ্রেণির বিভিন্ন উপস্থাপনা যেমন গান, নাটক, আবৃত্তি, নাচ, প্রভৃতিসহ অন্যান্য আয়োজন করতে পারে। এ লক্ষ্যে সমাবেশের সময় বাড়াতে হলে প্রয়োজনে বিদ্যালয় শুরুর সময় এগিয়ে আনা যাবে। কিন্তু কোনোমতেই সেশনের সময় কমানো যাবে না।

৩. রুটিনে উল্লিখিত কোনও বিষয়েরই সেশন সংখ্যা বা ক্রম পরিবর্তন করা যাবে না।

৪. জাতীয় বিদসগুলো উদযাপন (২১ ফেব্রুয়ারি, ১৭ মার্চ, ২৬ মার্চ, ১ বৈশাখ, ১ মে, ১৫ আগস্ট, ১৬ ডিসেম্বর) শিখনকালীন কার্যক্রম হিসেবে ধরা হয়েছে। জাতীয় দিবসের সেশনে রুটিন অনুসরণ না করে দিবস পালনে বিভিন্ন বিষয় সংশ্লিষ্ট কার্যক্রম পরিচালিত হবে। এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট বিষয় শিক্ষকরা আগে থেকেই পরামর্শ করে শিক্ষক সহায়িকার নির্দেশনা অনুসরণ করে বিদ্যালয়ে জাতীয় দিবসের কার্যক্রম সাজাবেন, যাতে দিবস পালনের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের যে অভিজ্ঞতা অর্জন করা প্রয়োজন, তা অর্জিত হয়।

৫. প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত শিক্ষকরাই শুধু ষষ্ঠ ও সপ্তম শ্রেণির সেশন পরিচালনার দায়িত্বপ্রাপ্ত হবেন। একটি শ্রেণির একটি বিষয়ে একজন শিক্ষককে দায়িত্ব দেওয়া যাবে, একই বিষয়ের একাধিক শিক্ষককে দায়িত্ব দেওয়া যাবে না। যে শিক্ষক যে বিষয়ে প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেছেন, তিনিই সে বিষয়ের সেশন/শ্রেণি কার্যক্রম পরিচালনার দায়িত্বপ্রাপ্ত হবেন।







সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ