মঙ্গলবার ০৫ মার্চ ২০২৪ ২১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

বর্ণিল আয়োজনে ২০২৪ কে বরণ করলো বিশ্ব
প্রকাশ: সোমবার, ০১ জানুয়ারি ২০২৪, ১১:০৬ পূর্বাহ্ণ

উৎসবমুখর পরিবেশে নতুন বছরকে বরণ করে নিলো বিশ্ব। সবার আগে ২০২৪ কে স্বাগত জানিয়েছে অকল্যান্ড ও সিডনি শহর। জমকালো আতশবাজি দিয়ে অকল্যান্ডের স্কাই টাওয়ারে প্রথম বরণ করে নেয় নিউজিল্যান্ডের ১০ লাখের বেশি বাসিন্দা।

ঘড়ির কাঁটায় স্থানীয় সময় রাত ১২টা বাজতেই অকল্যান্ড শহর বর্ণিল আলোকচ্ছটা ও আতশবাজিতে ছেয়ে যায়। কেন্দ্রস্থলে এক হাজার ফুটেরও বেশি উচ্চতার স্কাই টাওয়ার থেকে ছোড়া হয় বর্ণিল আলোকচ্ছটা ও আতশবাজি। এর আগেই অবশ্য প্রশান্ত মহাসাগরীয় ছোট্ট দ্বীপরাষ্ট্র কিরিবাতি নতুন বছরকে স্বাগত জানায়।

সিডনিতে নববর্ষের উদযাপনের অংশ হিসেবে সিডনি অপেরা হাউজ এবং হারবার ব্রিজের আকাশ আতশবাজিতে ছেয়ে যায়। ঘড়ির কাঁটা ১২টা বেজে উঠলে, হারবার ব্রিজের চারপাশ থেকে আতশবাজি নিয়ে নতুন বছরকে বরণ করে নেয় সিডনিবাসী।

লন্ডনে, আতশবাজি দেখতে টেমস নদীর তীরে লাখের বেশি মানুষ জড়ো হয়। এডিনবার্গেও জড়ো হয় অনেক মানুষ। আলোকসজ্জার মাধ্যমে নিরাপত্তার সঙ্গে নতুন বছরকে বরণ করে নেয় ফ্রান্স। ২০২৪ সালের অলিম্পিককে মাথায় রেখে সেজে ওঠে প্যারিস।

জাপানে, নতুন বছরকে স্বাগত জানাতে স্থানীয় মানুষ মন্দিরে জড়ো হয়। রাতে ১২টা বাজার সঙ্গেই মন্দিরে ঘণ্টা বেজে ওঠে।

এদিকে কিছুটা ভিন্নভাবে নতুন বছরকে বরণ করে নিয়েছে চীন। নিরাপত্তা এবং দূষণের কারণে বেশিরভাগ শহরে আতশবাজি নিষিদ্ধ করা হয়।

ভারতে, মুম্বাইয়ে হাজার হাজার মানুষ বছরের শেষ সূর্যাস্ত দেখার জন্য আরব সাগরের তীরে ভিড় জমায়।

পাকিস্তান সরকার ফিলিস্তিনিদের সাথে সংহতি প্রকাশের জন্য নববর্ষ উদযাপন নিষিদ্ধ করে। একটি টেলিভিশন বার্তায়, তত্ত্বাবধায়ক প্রধানমন্ত্রী আনোয়ার-উল-হক-কাকার নতুন বছরে ফিলিস্তিনিদের প্রতি সংহতি প্রদর্শনের আহ্বান জানান।

এদিকে ফিলিস্তিনিরা বলেছে নতুন বছর নিয়ে তাদের আশা খুব কম। প্রায় তিন মাসের ইসরায়েলি আগ্রাসনে প্রায় ২২ হাজার মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন।

অন্যদিকে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি তার দেশবাসীকে চলমান যুদ্ধের মধ্যে নিজ দেশের ভবিষ্যৎ নিয়ে আশাবাদী হতে আহ্বান জানিয়েছেন।

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন আগামী মার্চে নির্বাচনকে সামনে রেখে নতুন বছরে নিজ দেশের সেনাদের বাহবা দিয়েছেন। সেই সঙ্গে সবার মধ্যে একতা বজায় রাখার ওপর জোর দিয়েছেন।

খ্রিস্টিয় নতুন বছর বরণের অন্যতম আকর্ষণ হিসেবে নিউইয়র্কের টাইমস স্কয়ারের চলছে নিউ ইয়ার ইভের আয়োজন। প্রতিবছরের মতো এবারও সেখানে জোরেশোরে চলছে উৎসবের প্রস্তুতি।

 







সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ