শুক্রবার ০১ ডিসেম্বর ২০২৩ ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

রেকর্ড গড়া ম্যাচে গোল করে দল জেতালেন রোনালদো
প্রকাশ: বুধবার, ২১ জুন ২০২৩, ০২:০১ অপরাহ্ণ

রেকর্ডের মুকুটে আরেকটি পালক যোগ হলো পর্তুগিজ সুপারস্টার ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর। আন্তর্জাতিক ফুটবলে প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে ২০০ ম্যাচের মাইলফলক অর্জন করলেন পর্তুগিজ এই কিংবদন্তির। আইসল্যান্ডের বিপক্ষে ইউরো বাছাই পর্বের ম্যাচটি খেলতে নেমেই ইতিহাসের প্রথম পুরুষ ফুটবলার হিসেবে ম্যাচের ডাবল সেঞ্চুরি করে ফেললেন তিনি।

রেকর্ড গড়া ম্যাচেও গোল করলেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। এমনিতে ১২২ গোল নিয়ে আন্তর্জাতিক ফুটবলে সর্বোচ্চ আসনে বসে রয়েছেন তিনি। এবার ১ গোল করে দলকে যেমন জয়ের বন্দরে পৌঁছালেন, তেমনি ১২৩তম গোল করে রেকর্ড গড়া ম্যাচটিকে স্মরণীয় করে রাখলেন ৩৯ বছর বয়সী এই তারকা।

এমনিতেই ২০০তম ম্যাচ নিয়ে উচ্ছ্বসিত ছিলেন এই পর্তুগিজ তারকা। তারওপর তার গোলেই যখন আইসল্যান্ডের বিপক্ষে দল ১-০ ব্যবধানে জয়লাভ করে তখন, একে ‘সোনায় মোড়ানো’ উপাধি দেয়া ছাড়া আর কোনো উপায় থাকে না।

পুরো ম্যাচেই গোলবঞ্চিত থাকতে হয় পর্তুগিজদের। ব্রুনো ফার্নান্দেজ, বার্নর্ডো সিলভা, রুবেন দিয়াজদের মত ফুটবলাররা একের পর এক আক্রমণ করেও আইসল্যান্ডের জাল যখন ভেদ করতে পারছিলো না, তখন রোনালদোই বাজিমাত করেন। ম্যাচের ৮৯তম মিনিটে গোলটি করে বসেন সিআর সেভেন।

গনকালো ইনাসিওর হেড পাস থেকে ছোট বক্সের ডানপ্রান্তে বল পেয়ে যান রোনালদো। এরপর ডান পায়ের দুর্দান্ত এক শটে আইসল্যান্ডের জালে বল জড়িয়ে দেন তিনি। তবে ভিএআর চেক করে গোলের সিদ্ধান্ত দিতে হয় রেফারিকে।

তবে, যখন রোনালদো গোল করেন, তখন আইসল্যান্ড ছিল ১০ জনের দল। কারণ, ৮০তম মিনিটে উইলিয়াম উইলয়ামসন লাল কার্ড দেখে মাঠ থেকে বহিস্কার হন।

ইউরো বাছাই পর্বে ‘জে’ গ্রুপে ৪ ম্যাচের চারটিতেই জয় পেয়েছে পর্তুগাল। ৪ জয়ে ১২ পয়েন্ট নিয়ে তারা রয়েছে শীর্ষে। ১০ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে স্লোভাকিয়া এবং ৭ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে লুক্সেবার্গ। আইসল্যান্ড ৩ পয়েন্ট নিয়ে রয়েছে পঞ্চম স্থানে।

গত মার্চেই কুয়েতের বদর আল মুতাওয়াকে পার হয়ে বিশ্বের সবচেয়ে বেশি আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলা ফুটবলার হয়ে যান রোনালদো। মুতাওয়া আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছেন ১৯৬টি। ২০০৩ সালে অভিষেকের পর ২০২২ সাল পর্যন্ত জাতীয় দলে খেলেছেন তিনি। এই তালিকার সেরা দশে থাকা ৯ জনই এখন অবসরে। বর্তমান ফুটবলারদের মধ্যে লিওনেল মেসির ম্যাচ ১৭৫টি।

তবে আর্জেন্টাইন অধিনায়ক নিজেই জানিয়েছেন ২০২৬ বিশ্বকাপ না খেলার কথা। মেয়েদের ফুটবলে অবশ্য ২০০ বা বেশি আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছেন ২৬ জন। তাদের মধ্যে ৩০০-র বেশি ম্যাচ খেলেছেন চারজন। সর্বোচ্চ ৩৫৪ ম্যাচ খেলার কীর্তি যুক্তরাষ্ট্রের ক্রিস্টিন লিলির।







সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ