রবিবার ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ৫ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

হুঁশিয়ারি কাদেরের: শাপলা চত্বরের চেয়েও করুণ পরিণতি হবে আপনাদের
প্রকাশ: মঙ্গলবার, ১৭ অক্টোবর ২০২৩, ১১:২১ পূর্বাহ্ণ

ঢাকা অবরোধ করতে এলে শাপলা চত্বরে হেফাজতের যে অবস্থা হয়েছিল বিএনপিকে তার চেয়েও করুণ পরিণতি বরণ করতে হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

২০১৩ সালের ৫ মে হেফাজতে ইসলামের ঢাকা অবরোধ কর্মসূচিতে শাপলা চত্বরের কথা স্মরণ করিয়ে তিনি বলেন, শাপলা চত্বরে থেকে কী হলো শেষ রাতে? পালিয়ে গেলো না? আমি বলতে চাই না, আরও করুণ পরিণতি হবে বিএনপির। শেখ হাসিনা মাথা নত করেন না, আল্লাহ ছাড়া কাউকে ভয় করেন না। বিএনপির পরিণতি শাপলা চত্বরের চেয়েও খারাপ হবে।

সোমবার (১৬ অক্টোবর) বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে যুবলীগের যুব সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ হুঁশিয়ারি দেন। ওবায়দুল কাদের বলেন, সারাদেশ থেকে লোক এনে শহরে জড়ো করছে বিএনপি। তারা ঢাকা অবরোধ করতে চায়। আমরাও প্রস্তুত আছি। অবরোধ করলে বিএনপি অবরুদ্ধ হয়ে যাবে, বিএনপিকে অবরোধ করা হবে।

বিএনপি নেতাকর্মীদের তিনি বলেন, (ঢাকায়) লুকিয়ে ঢুকছো, চুরি করে ঢুকছো? এরপর পালানোর পথ পাবে না। শাপলা চত্বরে কী হয়েছিল শেষ রাতে? পালিয়ে গেলো না? আমি বলতে চাই না। আরও করুণ পরিণতি হবে বিএনপির।

বিএনপিকে কোনো ছাড় দেওয়া হবে না জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, চুরি করে এসে ঢাকায় আত্মীয়-স্বজনের বাসায় জড়ো হচ্ছে, অতিরিক্ত কাপড় আনতে বলেছেন ফখরুল। তখন আমরা কি ললিপপ খাবো? আমরাও বসে থাকবো না। ১৮ অক্টোবর আমরাও বায়তুল মোকাররমের দক্ষিণ গেটে জমায়েত করবো। আজ যা এসেছে, ওইদিন আরও বেশি আসবে।

তিনি বলেন, খেলা হবে, ছাড় দেবো না, ফখরুল। ডিসেম্বরের চেয়েও কড়া খেলা হবে। আওয়ামী লীগের অ্যাকশন, যুবলীগের অ্যাকশন, ডাইরেক্ট অ্যাকশন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘হাওয়া থেকে পাওয়া, ফখরুল বলে পশ্চিমা বিশ্বের সমর্থন আন্দোলনে নাকি বিএনপিকে সাহস যোগাচ্ছে? আমরা এটা জানি না, এ খবর হাছা নাকি মিছা? মিথ্যা কথা আর কত বলবা, ফখরুল?

তিনি বলেন, পশ্চিমা বিশ্বের যারা বাংলাদেশে এসেছে, যারা আমাদের সঙ্গে কথা বলেছে, যারা বিদেশে কথা বলেছে, তারা বলেছে বাংলাদেশের কোনো রাজনৈতিক দলকে সমর্থন তারা করে না। এ কথা আমেরিকাও বলেছে, এ কথা ইউরোপও বলেছে। ফখরুল কোথা থেকে মিছা, আজগুবি খবর নিয়ে এলো।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ফখরুল সাহস পাচ্ছে বিদেশ থেকে। আমরা সাহস পাচ্ছি দেশের জনগণের কাছ থেকে। বিদেশি সমীক্ষা বলছে, বাংলাদেশের ৭০ শতাংশ লোক আওয়ামী লীগকে সমর্থন করে। আমরা সাহস পাচ্ছি, বাংলাদেশের জনগণের সমর্থনে আমরা সাহস পাচ্ছি। আমরা কাউকে ভয় পাই না। যতক্ষণ জনগণ সঙ্গে আছে ততক্ষণ ভয় নেই।

যুবলীগ চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশের সভাপতিত্বে এবং সংগঠনের প্রচার সম্পাদক জয়দেব নন্দীর সঞ্চালনায় যুব সমাবেশে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম, যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হাসান নিখিল প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

 







সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ